গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ২৩ক অনুযায়ী: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান ‍"রাষ্ট্র বিভিন্ন উপজাতি, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের অনন্য বৈশিষ্ট্যপূর্ণ আঞ্চলিক সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য সংরক্ষণ, উন্নয়ন ও বিকাশের ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন।"

পার্বত্য জেলায় বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় রয়েছে কিন্তু সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের উন্নয়নের জন্য সরকারের কোন মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দপ্তর/সংস্থা না থাকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের জন্য ১৯৯৬ সাল হতে একটি নীতিমালার আলোকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে “বিশেষ এলাকার জন্য উন্নয়ন সহায়তা (পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্যতীত)” শীর্ষক কর্মসূচির বাস্তবায়ন শুরু করা হয় এবং কর্মসূচিটি চলমান রয়েছে।

এক নজরে কর্মসূচির তথ্যাদি
প্রকল্পের নাম সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের জন্য উন্নয়ন সহায়তা (তিন পার্বত্য জেলা ব্যতীত)।
মেয়াদ ১৯৯৬-১৯৯৭ অর্থ বছর থেকে চলমান
অর্থায়ন জিওবি
বাস্তবায়নকারী সংস্থা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়
কর্মসূচির উদ্দেশ্য স্বাস্থ্য, শিক্ষাসহ বিভিন্ন ধরণের আয়বর্ধক কর্মসূচির মাধ্যমে সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন।

সংবিধান (পঞ্চদশ সংশোধন) আইন, ২০১১ (২০১১ সনের ১৪নং আইন)-এর ১৪ ধারাবলে ২৩ক অনুচ্ছেদ সন্নিবেশিত।